আজ বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩রা বৈশাখ ১৪৩১

‘রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ছাড়া প্রবৃদ্ধির ধারা বজায় রাখা কঠিন’

নিজস্ব প্রতিবেদক : | প্রকাশের সময় : সোমবার ২০ নভেম্বর ২০২৩ ১১:৩৬:০০ অপরাহ্ন | অর্থনীতি ও বাণিজ্য

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ছাড়া অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ধারা বজায় রাখা কঠিন হবে বলে মন্তব্য করেছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন দি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মাহবুবুল আলম।

 

 

দেশের বিরাজমান বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি। রোববার (১৯ নভেম্বর) রাজধানীর মতিঝিলে অবস্থিত এফবিসিসিআই কার্যালয়ে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয় বলে সংগঠনটির পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

 

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, অর্থনীতিকে সচল রাখার স্বার্থে রাজনৈতিক দলগুলোকে সহিংস কর্মসূচি থেকে বিরত থাকতে হবে। রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ছাড়া অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ধারা বজায় রাখা কঠিন হবে। দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায় কোনো ধরনের রাজনৈতিক সহিংসতা চায় না।

 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সভায় দেশের শিল্প, ব্যবসা-বাণিজ্য, পণ্য উৎপাদন, রপ্তানি এবং সরবরাহ ব্যবস্থায় চলমান রাজনৈতিক সহিংসতার নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে আলোচনা হয়। সভায় অধিকাংশ চেম্বার নেতা হরতাল, অবরোধ, অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুরসহ সহিংস রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে নিজেদের অবস্থানের কথা জানান।

 

যেকোনো সহিংস কর্মসূচিতে সবার আগে ক্ষয়-ক্ষতির সম্মুখীন হন ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা, এমন দাবি করে সুনামগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি এবং এফবিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি খায়রুল হুদা চপল বলেন, আমরা হরতাল, অবরোধ চাই না। চলমান ৪৮ ঘন্টার অবরোধের পর আবারও যদি নতুন করে হরতাল বা অবরোধ দেয়া হলে, এর প্রতিবাদে এফবিসিসিআই’র নেতৃত্বে সারাদেশের ব্যবসায়ীদের নিয়ে আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির উদ্যোগ নিতে পারি।

 

গাজীপুর চেম্বারের সভাপতি ও এফবিসিসিআইয়ের সহসভাপতি মোহাম্মদ আনোয়ার সাদাত সরকার বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কিছু মহল ধ্বংসাত্মক কর্মসূচির পথ বেছে নিয়েছে, যা অর্থনীতির জন্য বড় হুমকি।

 

সারাদেশের জেলা চেম্বারগুলোকে সঙ্গে নিয়ে এফবিসিসিআইকে এসব ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান তিনি।

 

এফবিসিসিআইয়ের আরেক সহসভাপতি মুনির হোসেন বলেন, অতীতে সব সংকটে ব্যবসায়ীরা চ্যালেঞ্জ নিয়ে দেশের অর্থনীতিকে আজ একটি শক্তিশালী অবস্থানে দাঁড় করিয়েছেন। এবারও ব্যবসায়ীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে হয়ে চলমান চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করবেন।

 

মতবিনিময় সভায় ভার্চুয়ালি আরও যুক্ত ছিলেন এফবিসিসিআই’র বর্তমান ও সাবেক পরিচালক, সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, নীলফামারী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিসহ অন্যান্য চেম্বারের নেতারা।