আজ বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ই বৈশাখ ১৪৩১

১৬৪ রানেই অলআউট বাংলাদেশ

খেলাধুলা ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার ৩১ অগাস্ট ২০২৩ ০৭:৪৭:০০ অপরাহ্ন | খেলাধুলা

 

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে রীতিমতো নাস্তানাবুদ বাংলাদেশ। ব্যাটারদের আসা-যাওয়ার মিছিলে কেউই তেমন প্রতিরোধ গড়তে পারেননি। স্রোতের বিপরীতে ছিলেন একমাত্র নাজমুল হোসেন শান্ত। ৪২ তম ওভারে তিনি ফিরলে দ্রুত অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ।

 

বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) পাল্লেকেলেতে এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৪২.৪ ওভারে ১৬৪ রানে অলআউট হয়েছে সাকিব আল হাসানের দল।   

 

 

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই ধুঁকেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। অভিষেকটা সুখকর হয়নি ওপেনার তানজিদ হাসান তামিমের। এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শূন্য রানে আউট হয়েছেন তিনি। নাঈম প্রথম ওভারে একটি চার হাঁকালেও পরের ওভারের দ্বিতীয় বলেই বিদায় নেন তামিম।

 

 

তামিম আউট হওয়ার পর ওয়ানডাউনে খেলতে নামেন দেশের সবচেয়ে ইনফর্ম ব্যাটার নাজমুল হোসেন শান্ত। তামিম আউট হওয়ার ওভারে তাকেও বিপদে ফেলেন থিকশানা। কিন্তু রিভিউয়ে দেখা যায়, শান্তর প্যাডে লাগা বলটি পিচ হয়েছিল লেগ সাইডে।

 

এরপর একবার জীবন পান শান্ত, তার ক্যাচ ফেলে দেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দাসুন শানাকা। নাঈম শেখের আন্তর্জাতিক অভিষেক ঘটেছিল দাপটের সঙ্গে। ভারতের বিপক্ষে ঝোড়ো ইনিংস খেলে আগমনী বার্তা দিয়েছিলেন তিনি। এরপর আশানুরূপ পারফর্ম করতে না পারায় বাদ পড়েন জাতীয় দল থেকে। মাঝে কয়েকটি ম্যাচ খেললেও আবার সবার আড়ালে চলে যান। এশিয়া কাপ দিয়ে টিম ম্যানেজমেন্ট আবার তাকে দলে ফিরিয়েছে। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।

 

একের পর এক ডট দিয়ে যখন বাংলাদেশ বিপদে, তখন বিদায় নেন নাঈম শেখ। ধনঞ্জয়া ডি সিলভার বলের লাইন-লেন্থ না বুঝে শট খেলতে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। ২৩ বলে মাত্র ১৬ রান করেন এ ওপেনার। তার বিদায় নেয়ার কিছুক্ষণ পর সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও। ১১ বলে সাকিব করেন ৫ রান।

 

এক প্রান্তে নিয়মিত উইকেট পড়লেও অন্যপ্রান্তে একাই লড়ছিলেন শান্ত। চতুর্থ উইকেটে তাওহীদ হৃদয়কে নিয়ে গড়েন ৫৯ রানের জুটি। তুলে নেন নিজের ফিফটিও। ৪১ বলে ২০ রান করে হৃদয় ফিরলে দ্রুত সময়ের ব্যবধানে ফেরেন মুশফিক। 

 

মুশফিকের বিদায়ের পর মিরাজকে নিয়ে ধীরগতিতে এগোচ্ছিলেন শান্ত। কিন্তু দলীয় ১৪১ রানের মাথায় দুই ব্যাটারের ভুল বোঝাবুঝিতে ফিরতে হয় মিরাজকে। উইকেটের মিছিলের বিপরীতে ধীরে ধীরে সেঞ্চুরির দিকে এগোচ্ছিলেন শান্ত। সম্ভাবনা ছিল সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার। তবে আক্ষেপ নিয়েই শেষমেশ ফিরতে হয় এই ব্যাটারকে।

 

৭ চারে ১২২ বলে ৮৯ রান করে ফেরেন শান্ত। দীর্ঘদিন পর দলে ফিরে কাজে লাগাতে পারেননি শেখ মেহেদী। ওয়েল্লালাগের বলে হয়েছেন এলবিডব্লিউ। বাংলাদেশের শেষ ৩ উইকেট পড়েছে ৮ বলের ব্যবধানে। ৪৪ বল বাকি থাকতেই অলআউট হয় টাইগাররা।