আজ রবিবার ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ই শ্রাবণ ১৪৩১

হরিজন সম্প্রদায়ের প্রথম আইনজীবীকে গাউন পরিয়ে দিলেন জেলা জজ ড. আজিজ আহমেদ ভূঁইয়া

আইন-আদালত ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : শুক্রবার ১৫ মার্চ ২০২৪ ০১:০৭:০০ পূর্বাহ্ন | আইন-আদালত

হরিজন সম্প্রদায়ের সন্তান কৃষ্ণ দাশ বাংলাদেশের প্রথম আইনজীবী হিসেবে তালিকা ভুক্ত হওয়ায় আজ ১৪/৩/২৪ জেলা পিপি কার্যালয়ের উদ্যোগে জেলা পিপি অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংবর্ধনা দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র জেলা জজ জনাব ড. আজিজ আহমেদ ভূঁঞা, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি নাজিম উদ্দিন চৌধুরী ,১ম যুগ্ন জেলা জজ জনাব খায়রুল আমিন, চজেআস সাধারণ সম্পাদক আশরাফ হোসেন চৌধুরী রাজ্জাক, জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার জনাব ইব্রাহিম খলিল। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট আজাহারুল হক এবং উপস্থিত ছিলেন সকল সরকারী আইন কর্মকর্তা সহ প্রমূখ।  

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা জজ জনাব ড. আজিজ আহমেদ ভূঁঞা বলেন - মানুষের মধ্যে কোনো প্রকার ভেদাভেদ বা উচু জাত নিচু জাত বলতে বিভাজন করা মনুষত্যের কাজ নয়। প্রত্যেকটি মানুষ পৃথিবীতে সৃষ্টি কর্তার নির্দেশে এই পৃথিবীতে আসেন, তিনি যাকে যে পরিবার, গুষ্ঠি, সম্প্রদায়ে প্রেরণ করেন সেইখানেই সেই পরিবেশে ও ধর্মে লালিত হয়ে বড় হন। আমরা জন্মসূত্রে মুসলমান অন্য জন জন্ম সূত্রে হরিজন। পার্থক্য এইটুকু, সমাজের অবহেলিত শ্রেণীর সন্তান হয়ে কৃষ্ণ দাশ যে দৃষ্টান্ত রেখেছেন তার জন্য নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার রাখে। তার এই একাগ্রতা চিন্তা শক্তি এবং কঠোর পরিশ্রম তার জীবনে সফলতা এনে দিয়েছে, যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলা করে নিজের অবস্থান সুদৃঢ় রেখে প্রতিষ্ঠা করা যায় কৃষ্ণ তার দৃষ্টান্ত। জনাব আজিজ আহমেদ ভূঁঞা বলেন দেশের মানুষের বিচার বিভাগের উপর এখনো আস্থাশীল, এই আস্থাকে সমন্নয় রাখতে সবচেয়ে বেশী ভূমিকা পালন করতে হবে আইনজীবীদের। আইনজীবী ছাড়া ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করা কোনো ভাবেই সম্ভব নয়। দেশের সভ্যতা, গণতন্ত্র এবং আইনের শাসন কে সঠিক পথে পরিচালনা নির্দেশনায় বিচার বিভাগ সভ্যতার পারাম্ভিক লগ্ন থেকে মুখ্য ভূমিকা পালন করে আসছেন, সেইরকম একটি প্রতিষ্ঠানের হরিজন সম্প্রদায়ের সদস্য কৃষ্ণ দাশ অন্তর্ভুক্ত হয়েছে তা আনন্দের, গর্বের, গৌরবের। বিচারক হিসেবে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি, আমার কার্যকালে বাংলাদেশের প্রথম হরিজন সম্প্রদায়ের থেকে কৃষ্ণ আইনজীবী হয়েছেন। 

সভাপতির বক্তব্যে জেলা পিপি অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন & আইনজীবী হিসেবে একটি বিশেষ সম্রপদায়ের সন্তান কৃষ্ণ কে গ্রহন করে সংবর্ধনা দিতে পারে আমরা আনন্দিত। আশা করবো সে তার কর্মকালে নিজেকে একজন প্রকৃত আইনের সেবক হয়ে বিচারপ্রার্থী  জনগোষ্ঠীকে ন্যায় বিচার দিতে কঠোর পরিশ্রম করবে। তার একাগ্রতার মধ্য দিয়ে সম্প্রদায় কে সমৃদ্ধ এবং সম্প্রদায়ের প্রজন্ম কে উজ্জীবিত করেছে তার এই সফলতার জন্য তাকে অভিনন্দন। কৃষ্ণ দাশ হরিজন সম্প্রদায়ে জন্মগ্রহণ করে এবং প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি চট্টগ্রাম এর ২৩তম ব্যাচ থেকে আইন বিষয়ে স্নাতকোত্তর অর্জন করে এবং চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি শিক্ষানবিশ হিসেবে শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরীর সাথে যোগদান করে। দীর্ঘ ৫ বছর শিক্ষানবিশ হিসেবে কর্মরত থেকে আইনজীবী হিসেবে ২০২৪ এর ০৯/৩/২৪ইং  বাংলাদেশ বার কাউন্সিল কতৃক আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়।