আজ মঙ্গলবার ৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯শে আশ্বিন ১৪২৯

সীতাকুণ্ডে প্রবাসীর ২য় স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : | প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার ৯ ডিসেম্বর ২০২১ ০৮:১৭:০০ অপরাহ্ন | উত্তর চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের মহিউদ্দিন জসিম এর বাড়ির তিন তলার ভাড়াটিয়া লাকি আক্তার (৩২) নামে এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

লাকি আক্তার সৌদি আরব প্রবাসী আব্দুল মান্নানের স্ত্রী। আব্দুল মান্নান মুরাদপুর ইলিয়াস খান ভূইয়া বাড়ির মৃত ইউনুস টুনুর ছেলে৷ নিহত লাকী জসিম উদ্দিনের বাসার তিন তলায় গত দের বছর যাবত একা বসবাস করতেন ৷  পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।

 

নিহতের দুলাভাই মোঃ সেলিম উদ্দিন বলেন, আজ বৃহস্পতিবার( ৯ ডিসেম্বর) সকালে আবদুল মান্নান ফোন করে বলেন আমি বাড়িতে এসেছি তিন দিন হলো৷ এখন একটি কাজে ঢাকা যাচ্ছি৷

 

তিন তলার প্রতিবেশী উম্মে সালমা বলেন, গতকাল (৮ ডিসেম্বর) এশার আজানের সময় লাকি আমাকে বলেন আপা আমার স্বামী আসতেছে কথা কলি স্কুলের পেছনে দাঁড়িয়ে আছে আমি ওনাকে আনতে যাচ্ছি। তখন আমি বল্লাম আপনি একা যাচ্ছেন আমরা কেউ আসবো? তিনি বললেন না আসেত হবেনা। পরে আমি শুকনা করে খাটো একজন লোককে পেছন থেকে ঘরে ডুকতে দেখেছি কিন্তু সাথে কোন মালামাল ছিলোনা। এর পরে তিনি আমার কাছ থেকে দুটি ডিম নিয়ে যান, আর বলেন আমার স্বামী বিদেশে অসুস্থ ছিলো তাই শুকিয়ে গেছে এরপর দরজা বন্ধ করে দেন।   

 

দুই তলার প্রতিবেশী বলেন, রাত ১০টার দিকে লাকি আমার কাছে এসে বলেন আমার স্বামীর মালামাল আনতে যাবো গেইটের চাবিটা একটু দেন বলে আমার কাছ থেকে চাবি নিয়ে যান।  সকালে আমি ঘরের দরজা একটু খোলা দেখে ঘরে ঢুকি দেখি কোন সারা শব্দ নেই তাই মালিকের স্ত্রী আলেয়াকে ডেকে নিয়ে দেখি লাকি মৃত অবস্থায় পড়ে আছেন।  

 

এই দিকে বাড়ীর মালিকের স্ত্রী আলেয়া বলেন, লাকির পাশের প্রতিবেশী সকালে আমাকে ডেকে বলেন লাকির কোন সারা শব্দ পাচ্ছি না আমার সাথে চলেন তখন দিয়ে দেখি লাকির মৃত দেহ খাটের উপরে পড়ে আছে। লাকি সম্পর্কে জানতে চাইলে বলেন, লাকি আমার দেখা খুবই ভালো, পাচঁ ওয়াক্ত নামাজ কালাম পড়তেন।  

 

সীতাকুণ্ড পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর দিদারুল আলম এ্যাপোলো বলেন, হত্যাকারী সম্পর্কে এখনও কিছু বলতে পারছি না, আমি ওসি সাহেবের সাথে থেকে সহযোগিতা করছি৷ তদন্ত চলতেছে৷ 

 

সীতাকুণ্ড মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম বলেন, মহিলার স্বামী আব্দুল মান্নান সৌদি আবর থাকেন, গত তিন বছর আগে বাড়ী থেকে গেছেন। নিহত লাকি আব্দুল মান্নানের ২য় স্ত্রী।  প্রথম স্ত্রী পারভিন আক্তারের ঘরে এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। প্রথম স্ত্রী স্বামীর মুরাদপুরের ইলিয়াছ খাঁন ভূইয়া বাড়িতে থাকেন। গতকাল রাতে  লাকি তার বড়বোন কে ফোন করে বলেন আমার স্বামী বিদেশ থেকে আসতেছে। আবার সকালে (৯ডিসেম্বর) বড় বোন জামাই সেলিম উদ্দিনকে ফোন করে আব্দুল মান্নান বলেছেন আমি বিদেশ  থেকে এসেছি আজ তিন দিন হলো। এখন ঢাকা যাচ্ছি কাজে। কিন্তু যে নাম্বার থেকে ফোন করেছে সেটি কিন্তু সৌদি আরবের নাম্বার৷ পাশের বাসার প্রতিবেশী থেকে জানতে পারি গতকাল রাতে নিহত লাকি একজনকে নিয়ে বাসায় ঢুকতে দেখেছে কিন্তু সাথে কোন মালামাল ছিলোনা। এখন সে ব্যাক্তি স্বামী না অন্যকেউ এখনও নিশ্চিত নই। আমরা লাশটি ময়না তদন্তের জন্য চমেকে পাঠিয়েছি। তদন্ত চলছে৷