আজ শনিবার ২২ জানুয়ারী ২০২২, ৯ই মাঘ ১৪২৮

শহীদ মহিম চট্টলার ছাত্র জনতার চেতনা,অপপ্রচার রুখে দিবে ছাত্রলীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : | প্রকাশের সময় : রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ ০৩:৫৬:০০ অপরাহ্ন | চট্টমেট্টো

শহীদ মহিম উদ্দীন স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে রাজপথে সম্মুখসারীতে প্রতিবাদী ছাত্র জনতার কাঁধে কাঁধ রেখে স্বৈরাচারের পতন ঘটাতে ভূমিকা রেখেছিলেন।বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে ছাত্রলীগের নগরের আন্দোলন সংগ্রামের কারিগর সৃষ্টির প্রতিষ্ঠান ঐতিহ্যবাহী ওমর গণি এমইএস কলেজ সংসদের ভিপি নির্বাচিত হয়ে চট্টগ্রামের নগর, উত্তর, দক্ষিণ ছাত্রলীগের প্রাণ ভোমরা হয়ে উঠেন চট্টগ্রামের কিংবদন্তি ছাত্রনেতা শহীদ মহিম উদ্দীন মহিম।

শহীদ মহিমের সুনাম,খ্যাতি ও চারদলীয় জোট বিএনপি জামাত সরকারের বিরুদ্ধে প্রগতিশীল ছাত্রনেতাদের নিয়ে চট্টগ্রামে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তুলেন।
ফলশ্রুতিতে বিএনপি-জামাত সরকার শহীদ মহিমকে শেষ করে দিতে বারবার মামলা হামলাও দমন পীড়ন চালাতে থাকে,
অন্যদিকে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে মহিম উদ্দীনের ত্যাগের মূল্যায়নস্বরুপ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপ-পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত করেন।
তখন ছাত্রনেতা মহিম উদ্দীনের নজরকাড়া রাজনীতি সমগ্র বাংলাদেশে ছাত্রজনতাকে উজ্জীবিত করেছে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের বিরুদ্ধে। 
বীর চট্টলার ছাত্রলীগের এই সময়ের সাহসী সন্তানকে নিঃশেষ করে দিতে ২০০৪ সালের ২৮শে নভেম্বর তৎকালীন সরকারের নীল নকশায় বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করে নিয়ে গিয়ে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে ফ্যাসিষ্ট সরকার সিনিয়র নেতাদের নিয়ে এবং দলের গুরুত্বপূর্ণ গোপন পরিকল্পনা স্বীকারোক্তি আদায়ে ব্যর্থ হয়ে ক্রসফায়ারের নাটক সাজিয়ে ২৯শে নভেম্বর নির্মমভাবে হত্যা করে ছাত্র রাজনীতির অহংকার মহিম উদ্দীনকে।
তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা শহীদ মহিমের পরিবারকে সান্ত্বনা দিতে এসে মহিমের মা'কে জড়িয়ে ধরে অঝোরে কেঁদেছিলেন, যা দেখে চট্টগ্রামের আওয়ামী পরিবার তথা সারা বাংলাদেশ কেঁদেছিলেন পত্র-পত্রিকায় ছবি দেখে।
শহীদ মহিমকে হত্যার প্রতিবাদে তৎসময়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ,মহানগর ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের অংগসংঘটনগুলো বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেন।
প্রতিবছর শহীদ মহিম উদ্দীনের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ১৭ বছর ধরে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে আসছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ,চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ,ওমরগণি এমইএস বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ, কলেজ ছাত্র সংসদ,নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড ইউনিট ছাত্রলীগ, ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দরা।
নগরীর গরীবুল্লাহ শাহ মাজারস্থ শহীদ মহিমের কবরে ফাতিহা পাঠ,পুষ্পস্তবক অর্পন,দোয়া মাহফিল ও কাঙ্গালিভোজসহ নানা আয়োজনে শহীদ মহিমকে নেতাকর্মীরা স্মরণ করে আসছেন।
শোক সভায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের তৎকালীন শহীদ মহিমের দলীয় সহযোদ্ধাগণ, বর্তমানে আওয়ামী লীগ সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীও সংসদ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত থেকে শোক প্রকাশ করেন। 
সাম্প্রতিক সময়ে শহীদ মহিম উদ্দীনকে নিয়ে উদ্দেশ্যেমূলক অপপ্রচার চালানোর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন চট্টলার ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতৃবৃন্দ তারা বলেন শহীদ মহিম উদ্দীন চট্টগ্রামের ছাত্রলীগের প্রাণের স্পন্দন, আদর্শের বাতিঘর,যারা শহীদ মহিম উদ্দীনকে নিয়ে সমালোচনা করছেন তাদের নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে,নতুবা ছাত্রলীগ, মহিমের অনুসারী,সহযোদ্ধাদের নিয়ে তাদেরকে প্রতিহত করবে।
 
 


সবচেয়ে জনপ্রিয়