চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১

প্রকাশ :  ২০২১-০৪-২১ ১৬:০৯:১২

করোনায় মহাসড়কের সীতাকুন্ডে বেড়েছে সিএনজি চালিত অটোরিক্স

 নিজস্ব প্রতিবেদক, সীতাকুন্ডঃ

জনসবার্থে দেশব্যাপী চলছে লক ডাউন। ব্যবসা- বানিজ্য এবং শিল্প-প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় রয়েছে বিধি-নিষেধ। এরপরও মানুষদের ঘর থেকে বের হচ্ছে চাকুরিজীবি ও ব্যাক্তি সমস্যা সমাধানে। তবে রাস্তায় নেমে যান বাহনের সমস্যায় বেগ পেতে হচ্ছে। কিন্তু প্রাইভেট গাড়ি ও সিএনজি অটোরিক্সার চলাচল করায় কিছুটা সস্তি বোধ করছেন নানা কাজে বের হওয়ায় সাধারন মানুষ। আর জনগনের রাস্তায় বের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মহাসড়ক দখলে নিয়ে দাফিয়ে চলছে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা। এতে ব্যস্ততম মহাসড়ক ঝুকিপূর্ন হয়ে উঠায় দুর্ঘটনা আশংকা তৈরী হয়েছে। সরকারী জারীকৃত প্রজ্ঞাপনের বলা হয়েছে নির্দিষ্ট ক্যাটাকরী বাইরের কোনো যানবাহন ও জনগন রাস্তায় বের হওয়া আইনত দন্ডনীয়। এ অবস্থায় চলমান বিধি-বিধানের আওতায় কেউ রাস্তায় বের হলে অবশ্যয় মুভমেন্ট পাস রাখতে হবে। অথচ খাতা-কলমে যান বাহন চলাচলে বাধ্য-বাধকত থাকলেও বাস্তবে লঙ্ঘিত হচ্ছে সড়ক পথে। আইন-শৃংখলা বাহিনীর তৎপরতা মাঝে হরদম চলাচল করছে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা। পন্য পরিবহনের পাশাপাশী সড়কপথে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা বৃদ্ধি পাওয়ায় ব্যস্ততম সড়ক পথ ঝুকিতে পড়েছে বলে জানান অনুমোদিত পরিবহনের চালকরা। তারা বলেন,‘ মহাসড়কের সীতাকুন্ডে অংশে মাত্রাতিরিক্ত হারে বৃদ্ধি পেয়েছে সিএনজি অটোরিক্সা। বিভিন্ন অজুহাতে সড়ক পথে এ সকল পরিবহন চলাচলে নেই গতি নিয়ন্ত্রন। ফলে নির্দিষ্ট গতিতে চলতে গিয়ে প্রায় পড়তে হচ্ছে ঝামেলায়। তাছাড়া বেপোরোয়া চলাচলের কারনে বড় ধরনের দুর্ঘটনার সম্মুক্ষিন হতে হচ্ছে বলে জানান তারা। প্রজ্ঞাপন অনুসারে সড়ক পথে সিএনজি চালিতসহ ব্যাক্তিগত পরিবহন চলাচলে জারী করা হয়েছে বিধি-নিষেধ। আইনের প্রয়োগ না থাকায় সড়ক পথে প্রতিদিন বাড়ছে আইন বর্হিবুত যানবাহন। এ বিষয়ে বারআউলিয়া হাইওয়ে থানার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম বলেন,‘ অবৈধ যানবাহন চলচলে প্রতিদিন অভিযান অব্যহত রয়েছে। এর মাঝেও রাস্তায় চলছে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা।

আরো সংবাদ