চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১

প্রকাশ :  ২০২১-০৪-০৮ ১৯:১০:২২

আনোয়ারায় পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মাদক ব্যবসায়ীর হাতে যুবক খুন

 আনোয়ারা প্রতিনিধি:

আনোয়ারায় রুবেল দাশ (৩৮) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীর লোহার চেইনের আঘাতে খুন হল রুপন আচার্য্য (৩৭) নামে এক যুবক। বুধবার(৭ এপ্রিল) ভোরে উপজেলার চাতরী ইউনিয়নে কৈনপুরা জেলে পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে । নিহত রুপন স্থানীয় মৃত রাখাল চন্দ্রের পুত্র ও রুবেল একই এলাকার বাবুল জলদাসের পুত্র। ঘটনার পর বৃহস্পতিবার পুলিশ রুবেলের ভাই সন্ধেহে সুমন দাশ (৪০) নামের একজনকে আটক করলেও খুনি রুবেল দাশ ও তার ভাইয়েরা পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্ততি চলছে। আনোয়ারা থানা ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাযায়, গত বুধবার ভোরে উপজেলার কৈনপুরা এলাকার রুপন আচার্য্যরে সাথে রুবেল দাশের পাওনা টাকা নিয়ে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে রুবেলের লোহার চেইনের আঘাতে গুরুতর আহত হয় রুপন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে আনোয়ারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি প্রেরণ করে। চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে রুপনের মৃত্যু হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে নিহত রুপনের বাড়ীতে গিয়ে দেখা যায় রুপনের অসুস্থ মা (৯০) ফ্যাল-ফ্যাল চোখে সবার দিকে থাকিয়ে আছে। অবুঝ শিশু জ্যাতিষ্ময় আচার্য্য(৬) চোখে পানি আর ভাতের তালা নিয়ে বসে বাবার অপেক্ষা করছে। প্রতিবেশীরা তাদের সান্তনা দেওয়ার চেষ্ঠা করছে। স্বজনরা রুপনের সৎকারের প্রস্ততি নিচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রতিবেশীরা জানায়, রুবেল ইয়াবা ও মদের ব্যবসা করে। রুবেলে এক ভাই ইয়াবাসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়ে এখনো জেলে আছে। এলাকায় রুবেলের পরিবারের ভয়ে কেউ মুখ খোলে না। নিহতের বড় ভাই হরদন আচার্য্য বলেন, আমার ভাই রুবেলের কাছে ৩ শত টাকা পাবে। এই টাকা চাইতে গেলে রুবেল আমার ভাইকে মারধর করে। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার ভাই মারা যায়। আমি সঠিক বিচার চাই। রুপনের পরিবারে স্ত্রী ২ পুত্র ও ১ কন্যা রয়েছে। আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসএম দিদারুল ইসলাম সিকদার জানান, পাওনা ৩শ’ টাকাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত সন্ধেহে সুমন নামে একজনকে আটক করেছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তবে এখনো নিহতের পরিবার থেকে কোন মামলা হয়নি।

আরো সংবাদ