চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১

প্রকাশ :  ২০২১-০৪-০৬ ১২:৩৪:৩৩

মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে হামলায় আহত -৪

বোয়ালখালী প্রতিনিধি :

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ চারজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সোমবার(৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নে বেংগুরা রহিম বক্সের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মো. আবদুর রহিম বাদী হয়ে থানায় সাতজনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেছেন। হামলায় আহতরা হলেন, মো.তৈাহিদুল আলম(২৬), মো. শফিকুল আলম(২৩), মো. আবদুর রহিম(৬৯) ও মমতাজ বেগম। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত মো. তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আবদুর রহিমের পুকুর থেকে প্রতিবেশী মো. আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ৭/৮ জন ব্যক্তি মাছ ধরা শুরু করেন। খবর পেয়ে পুকুর মালিক আবদুর রহিমের ছেলে মো. তৈাহিদুল আলম বাধ দিতে গেলে প্রতিপক্ষ আনোয়ারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে আহত করেন। এ সময় তারা হামলা চালিয়ে বৃদ্ধা মহিলাসহ আরো তিনজনকে আহত করেন। স্থানীয় এলাকাবাসি আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার গুরুতর আহত তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। হামলায় আহত তৈাহিদুলের বাবা আবদুর রহিম বলেন, তার প্রতিপক্ষরা খুবই প্রভাবশালী। হামলার পর থেকে তারা আবরও প্রতিপক্ষের আক্রমনের ভয়ে এলাকা থেকে স্বপরিবারে আত্মগোপনে রয়েছেন। এ বিষয়ে বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল করিম বলেন, সংঘটিত ঘটনায় মামলা দিলে মামলা নেওয়া হবে। অভিযুক্ত মো. আনোয়ারের মুটো ফোনে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ পাওয়া যায়নি। কাজী আয়েশা ফারজানা বোয়ালখালী,চট্টগ্রাম ০১৭৩২০৪৫৬২৬ মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে হামলায় আহত -৪ বোয়ালখালী প্রতিনিধি চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ চারজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সোমবার(৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নে বেংগুরা রহিম বক্সের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মো. আবদুর রহিম বাদী হয়ে থানায় সাতজনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেছেন। হামলায় আহতরা হলেন, মো.তৈাহিদুল আলম(২৬), মো. শফিকুল আলম(২৩), মো. আবদুর রহিম(৬৯) ও মমতাজ বেগম। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত মো. তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আবদুর রহিমের পুকুর থেকে প্রতিবেশী মো. আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ৭/৮ জন ব্যক্তি মাছ ধরা শুরু করেন। খবর পেয়ে পুকুর মালিক আবদুর রহিমের ছেলে মো. তৈাহিদুল আলম বাধ দিতে গেলে প্রতিপক্ষ আনোয়ারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে আহত করেন। এ সময় তারা হামলা চালিয়ে বৃদ্ধা মহিলাসহ আরো তিনজনকে আহত করেন। স্থানীয় এলাকাবাসি আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার গুরুতর আহত তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। হামলায় আহত তৈাহিদুলের বাবা আবদুর রহিম বলেন, তার প্রতিপক্ষরা খুবই প্রভাবশালী। হামলার পর থেকে তারা আবরও প্রতিপক্ষের আক্রমনের ভয়ে এলাকা থেকে স্বপরিবারে আত্মগোপনে রয়েছেন। এ বিষয়ে বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল করিম বলেন, সংঘটিত ঘটনায় মামলা দিলে মামলা নেওয়া হবে। অভিযুক্ত মো. আনোয়ারের মুটো ফোনে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ পাওয়া যায়নি। কাজী আয়েশা ফারজানা বোয়ালখালী,চট্টগ্রাম ০১৭৩২০৪৫৬২৬ মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে হামলায় আহত -৪ বোয়ালখালী প্রতিনিধি চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ চারজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সোমবার(৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নে বেংগুরা রহিম বক্সের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মো. আবদুর রহিম বাদী হয়ে থানায় সাতজনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেছেন। হামলায় আহতরা হলেন, মো.তৈাহিদুল আলম(২৬), মো. শফিকুল আলম(২৩), মো. আবদুর রহিম(৬৯) ও মমতাজ বেগম। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত মো. তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আবদুর রহিমের পুকুর থেকে প্রতিবেশী মো. আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ৭/৮ জন ব্যক্তি মাছ ধরা শুরু করেন। খবর পেয়ে পুকুর মালিক আবদুর রহিমের ছেলে মো. তৈাহিদুল আলম বাধ দিতে গেলে প্রতিপক্ষ আনোয়ারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে আহত করেন। এ সময় তারা হামলা চালিয়ে বৃদ্ধা মহিলাসহ আরো তিনজনকে আহত করেন। স্থানীয় এলাকাবাসি আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার গুরুতর আহত তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। হামলায় আহত তৈাহিদুলের বাবা আবদুর রহিম বলেন, তার প্রতিপক্ষরা খুবই প্রভাবশালী। হামলার পর থেকে তারা আবরও প্রতিপক্ষের আক্রমনের ভয়ে এলাকা থেকে স্বপরিবারে আত্মগোপনে রয়েছেন। এ বিষয়ে বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল করিম বলেন, সংঘটিত ঘটনায় মামলা দিলে মামলা নেওয়া হবে। অভিযুক্ত মো. আনোয়ারের মুটো ফোনে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ পাওয়া যায়নি। কাজী আয়েশা ফারজানা বোয়ালখালী,চট্টগ্রাম ০১৭৩২০৪৫৬২৬ মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে হামলায় আহত -৪ বোয়ালখালী প্রতিনিধি চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ চারজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সোমবার(৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নে বেংগুরা রহিম বক্সের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মো. আবদুর রহিম বাদী হয়ে থানায় সাতজনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেছেন। হামলায় আহতরা হলেন, মো.তৈাহিদুল আলম(২৬), মো. শফিকুল আলম(২৩), মো. আবদুর রহিম(৬৯) ও মমতাজ বেগম। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত মো. তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আবদুর রহিমের পুকুর থেকে প্রতিবেশী মো. আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ৭/৮ জন ব্যক্তি মাছ ধরা শুরু করেন। খবর পেয়ে পুকুর মালিক আবদুর রহিমের ছেলে মো. তৈাহিদুল আলম বাধ দিতে গেলে প্রতিপক্ষ আনোয়ারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে আহত করেন। এ সময় তারা হামলা চালিয়ে বৃদ্ধা মহিলাসহ আরো তিনজনকে আহত করেন। স্থানীয় এলাকাবাসি আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার গুরুতর আহত তৈাহিদুল আলমকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। হামলায় আহত তৈাহিদুলের বাবা আবদুর রহিম বলেন, তার প্রতিপক্ষরা খুবই প্রভাবশালী। হামলার পর থেকে তারা আবরও প্রতিপক্ষের আক্রমনের ভয়ে এলাকা থেকে স্বপরিবারে আত্মগোপনে রয়েছেন। এ বিষয়ে বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল করিম বলেন, সংঘটিত ঘটনায় মামলা দিলে মামলা নেওয়া হবে। অভিযুক্ত মো. আনোয়ারের মুটো ফোনে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

আরো সংবাদ