চট্টগ্রাম, বুধবার, ৩ মার্চ ২০২১

প্রকাশ :  ২০২১-০১-১৬ ২২:০২:১৪

সেন্টমার্টিনের আকর্ষন ‘বারবিকিউ’

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি :

নভেম্বর মাসে শুরু হয়ে মার্চ পর্যন্ত প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন ভ্রমনের উপযুক্ত সময়। দেশ বিদেশের হাজার হাজার পর্যটক এই সময়ে ভ্রমনে আসেন। এদের মধ্যে অনেকে দিনে দিনে ফিরে গেলেও আবার অনেক রাত যাপন করে থাকেন। বিশেষ করে প্রেমিক যুগল, নব দম্পতি আবার অনেকে স্বপরিবারে।

প্রবাল দ্বীপে খাবার তালিকায় মাছের বিকল্প নেই বললেই চলে। সামুদ্রিক মাছের নানা রকম বহরা বসিয়ে পর্যটকদের আকর্ষিত করে থাকেন হোটেল রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীরা। এর মধ্যে চান্দা মাছ, ফ্লাইং মাছ, ভোল মাছ, সামুদ্রিক কোরাল, মাইট্যা মাছ, ইলিশ মাছ, পোয়া মাছসহ কয়েক প্রকারের তরতাজা মাছ প্রতিদিন পাওয়া যায়। এসব মাছ চাহিদামতে রান্নার পাশাপাশি ফ্রাই করে পরিবেশন করা হয় পর্যটকদের কাছে।

বিশেষ করে যারা রাত যাপন করে থাকেন তাদের প্রধান আকর্ষন রাতের ‘বারবিকিউ’। চাহিদা মত ৩ থেকে ১০ কেজি ওজনের বড় বড় মাছ নিয়ে নানা রকম মসল্লা মিশিয়ে আগুনে পুড়িয়ে খাওয়ার উপযোগী করা হয়। হোটেলের বাহিরে খোলা জায়গায় দাউদাউ করে আগুন জ্বালিয়ে প্রথমে কয়লায় পরিণতি করে। এরপর মসল্লায় মিশানো মাছ ওই কয়লায় চেকিয়ে খাওয়ার উপযোগী করে তুলে। এই কায়দায় করে খাওয়ার নামই হচ্ছে ‘বারবিকিউ’। এসময় পর্যটকের দল শিল্পীদের নিয়ে গান, নৃত্য ও আনন্দে মেতে উঠে। কিছু সময়ের জন্য হারিয়ে যায় কৈশোর আর নব যৌবনে। ভ্রমনকে আনন্দ হিল্লোলে মাতিয়ে তুলে উপভোগ করে ক্ষণিকের তরে।

 

 

 

আরো সংবাদ