এই মাত্র পাওয়া :

বাংলাদেশ , শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০

চট্টগ্রামে ইউপি নির্বাচনের প্রস্তুতি

লেখক : admin | প্রকাশ: ২০২০-১০-১৭ ১৬:১৬:০১


নিজস্ব প্রতিবেদক :
চট্টগ্রামের ৬ উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ ও উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর)।

তবে মীরসরাই উপজেলার মিঠানালা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ আরও তিন ইউনিয়নের সাধারণ ওয়ার্ডে সদস্য পদের প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ওইসব ইউনিয়নে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।
এদিকে নির্বাচন সামনে রেখে রোববার (১৮ অক্টোবর) সংশ্লিষ্ট উপজেলাগুলোতে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানোর প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয়।

২০ অক্টোবর হতে যাওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের মধ্যে ৪টি ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ায় সাধারণ নির্বাচন এবং বাকি ৭টি ইউনিয়নে বিভিন্ন কারণে শূন্য হওয়া পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মোট ২৮ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ১১৮ জন সাধারণ সদস্য এবং ৩৭ জন সংরক্ষিত সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন।

মিরসরাই উপজেলার মিঠানালা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী এম এ কাসেম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ওই ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ হবে না। এছাড়া চন্দনাইশ উপজেলার বরকল ইউনিয়নের ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, রাউজান উপজেলার চিকদাইর ইউনিয়নের ৪ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য এবং ফটিকছড়ি উপজেলার খিরাম ইউনিয়নের ৫ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদের তিন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, ২০ অক্টোবরের ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। রোববারের (১৮ অক্টোবর) মধ্যে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট উপজেলাসমূহে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠিয়ে দেওয়া হবে। সেখান থেকে সোমবার (১৯ অক্টোবর) নির্বাচনী এলাকায় সরঞ্জামাদি পাঠানো হবে। সবমিলিয়ে ৬৩টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ঘিরে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট এলাকায় ৬জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। গত ১৫ অক্টোবর নির্বাচন কমিশনের উপসচিব (আইন) আফরোজা শিউলি স্বাক্ষরিত পত্রে বিষয়টি জানানো হয়।

নিয়োগপ্রাপ্ত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটরা ১৮ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

নিয়োগপ্রাপ্ত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটদের মধ্যে সন্দ্বীপ উপজেলার হারামিয়া ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আকবর হোসেন, ফটিকছড়ি উপজেলার সুয়াবিল ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. হেলাল উদ্দিন এবং নানুপুর ইউনিয়নে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেলাল হোসেন, লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. শহীদ্দুল্লাহ কায়সার, লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম জিহান সানজিদা এবং আধুনগর ইউনিয়নে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কৌশিক আহম্মদ খন্দকার দায়িত্বে থাকবেন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, কর্ণফুলী উপজেলার জুলধা ইউনিয়নের ৯ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, বোয়ালখালী উপজেলার আমুচিয়া ইউনিয়নের ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, রাঙ্গুনিয়া উপজেলার চন্দ্রঘোনা কদমতলী ইউনিয়নের ৩ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, সন্দ্বীপ উপজেলার মগধারা ইউনিয়নের ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য, হারামিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ, লোহাগাড়া সদর, আধুনগর ইউনিয়ন ও ফটিকছড়ি উপজেলার সুয়াবিল ইউনিয়নে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ফটিকছড়ি উপজেলার নানুপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে, জাফতনগর ইউনিয়নের ৮ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ সময় ছিল। ২৬ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন বাছাই করা হয় এবং ৩ অক্টোবর ছিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ সময়।

Print Friendly and PDF