এই মাত্র পাওয়া :

বাংলাদেশ , বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০

তৈয়বকে হত্যার পর ‘গণপিটুনি’ বলে চালানোর চেষ্টা আসামিদের

লেখক : admin | প্রকাশ: ২০২০-১০-১৭ ১৪:৪৩:৫২


নিজস্ব প্রতিবেদক :

নগরের বাকলিয়া থানাধীন নতুন ফিসারিঘাট এলাকায় শ্রমিকদের মাঝি মো. আবু তৈয়বকে ছুরিকাঘাতে ও পিটিয়ে খুনের পর গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে বলে প্রচার করে বাঁচার চেষ্টা করেছিল আসামিরা।

কিন্তু ঘটনার তিন ঘণ্টার মধ্যে অভিযান চালিয়ে হত্যার সঙ্গে জড়িত ৭ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।
শনিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মেহেদী হাসান।

তিনি জানান, পূর্বশত্রুতার জেরে পরিকল্পিতভাবে ডেকে এনে ছুরিকাঘাত ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে আবু তৈয়বকে। হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা আক্তার। তাকে আমরা প্রথমে গ্রেফতার করেছি। পরে অন্যদের গ্রেফতার করি। এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত আরও কয়েকজনের তথ্য আমরা পেয়েছি। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

গ্রেফতার ৭ জন হলো- আক্তার হোসেন প্রকাশ কসাই আক্তার, মো. সাইফুদ্দীন, মো. রায়হান উদ্দিন প্রকাশ রানা, আশরাফুল ইসলাম, মো. সবুজ, মো. আবু তাহের প্রকাশ কালু ও হাসিনা।

শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে নতুন ফিসারিঘাট এলাকায় খুন হন মো. আবু তৈয়ব। তিনি কর্ণফুলী থানাধীন শিকলবাহা মাস্টারহাট এলাকার আহমদ মিয়ার ছেলে। নতুন ফিসারিঘাটে শ্রমিকের মাঝি হিসেবে কাজ করতেন আবু তৈয়ব।

সংবাদ সম্মেলনে সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) পলাশ কান্তি নাথ, সহকারী কমিশনার (চকবাজার জোন) মুহাম্মদ রাইসুল ইসলাম, বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নেজাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে আসামিদের আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড চাওয়া হবে বলে জানান উপ-কমিশনার এসএম মেহেদী হাসান।

Print Friendly and PDF