এই মাত্র পাওয়া :

বাংলাদেশ , বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০

এন্ড্রু কিশোরের মেয়ে মঙ্গলবার ফিরছেন, শিল্পীর শেষকৃত্য বুধবার

লেখক : admin | প্রকাশ: ২০২০-০৭-১২ ১৮:৩৮:০৯



নিজস্ব প্রতিবেদক :




প্রয়াত কিংবদন্তি শিল্পী এন্ড্রু কিশোরের ছেলে সপ্তক অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন, মেয়ে সংজ্ঞা মেলবোর্ন শহর থেকে দেশের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। মঙ্গলবার তার ঢাকা হয়ে রাজশাহী পৌছার কথা। সন্তানদের শেষবার বাবার মুখ দেখতে দেওয়ার জন্যই এন্ড্রু কিশোরের মরদেহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হিমঘরে সংরক্ষণ করা হয়েছে। বুধবার বরেণ্য এ শিল্পীর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

রোববার (১২ জুলাই) এন্ড্রু কিশোরের শিষ্য ও তার পরিবারের ঘণিষ্ঠ কণ্ঠশিল্পী মোমিন বিশ্বাস গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, এন্ড্রু কিশোরের দুই সন্তানই অস্ট্রেলিয়ায় পড়াশোনা করেন। কিশোরের মৃত্যুর পর তার ছেলে সপ্তক ফিরেছেন গত বৃহস্পতিবার। কিন্তু ফ্লাইট বাতিল হওয়ায় মেয়ের ফিরতে দেরি হচ্ছিল। তিনি ফিরছেন মঙ্গলবার। শিল্পীর শেষ ইচ্ছে অনুযায়ী, রাজশাহীর সার্কিট হাউস ও কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে খ্রিস্টান কবরস্থানে মায়ের কবরের পাশে সমাহিত হবে এন্ড্রু কিশোর।



মোমিন বিশ্বাস বলেন, মৃত্যুর আগে শিল্পী এন্ড্রু কিশোর তার শেষ ইচ্ছের কথা জানিয়ে যান। কবরস্থানে ঢুকেই বাম পাশের একটি স্থান তার পছন্দ। সে অনুযায়ী সমাধির স্থান প্রস্তুত হচ্ছে। এই কবরস্থানেই সমাহিত হয়েছেন শিল্পীর বাবা ক্ষীতিশ চন্দ্র বাড়ৈ ও মা মিনু বাড়ৈ।

রাজশাহীতে জন্ম নেয়া এন্ড্রু কিশোর প্রায় ১৫ হাজার গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। তাকে বলা হয় ‘প্লেব্যাক সম্রাট’। আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া এই শিল্পী ক্যান্সারে ভুগছিলেন।

কিংবদন্তি শিল্পী এন্ড্রু কিশোর গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরেই ছিলেন। কেমোথেরাপি ও রেডিওথেরাপি চিকিৎসার পরও দ্বিতীয় দফায় তার দেহে ক্যান্সার বাসা বাঁধে। ফলে চিকিৎসকরা হাল ছেড়ে দেন। তাই শিল্পীর ইচ্ছায় তাকে দেশে আনা হয় গত ১১ জুন। এর পর থেকে রাজশাহীতে তিনি বোনের বাসায় ছিলেন।

গত ৬ জুলাই সন্ধ্যায় এখানেই উপমহাদেশের এই কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার মরদেহ এখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে।



আগামী বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মরদেহ সিটি চার্চে নিয়ে ধর্মীয় আচার শুরু হবে। এন্ড্রু কিশোরের ইচ্ছা অনুযায়ী, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তার মরদেহ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে নেয়া হবে। সেখানে তার শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও ভক্তদের শেষ শ্রদ্ধা জানানোর সুযোগ দেয়া হবে।

এর পর এন্ড্রুর মরদেহ রাজশাহী কলেজে রাখা হবে। সেখানেও ভক্ত-অনুরাগীদের শ্রদ্ধা জানানোর সুযোগ দেয়া হবে। শ্রদ্ধা জানানো শেষে বিকাল সাড়ে ৩টায় এন্ড্রু কিশোরের মরদেহ সমাধিস্থলে নেয়া হবে। সেখানেই শিল্পীর পছন্দ করা জায়গায় তাকে সমাহিত করা হবে।

Print Friendly and PDF