এই মাত্র পাওয়া :

বাংলাদেশ , মঙ্গলবার, ৭ জুলাই ২০২০

আনোয়ারায় আন্নর আলী সিকদার বেইলি ব্রীজ

খসে পড়ছে পাটাতন ,অর্ধশত ফটো, হাঁটলেই কেঁপে উঠে সেতু

লেখক : admin | প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৯ ১৭:৫৭:২২



জাহাঙ্গীর আলম,আনোয়ারা :


আনোয়ারা উপজেলার বটতলী ইউনিয়নের পূর্ব বরৈয়া আন্নর আলী সিকদার হাটে সাপমারা খালের উপর নির্মিত বেইলি ব্রীজটির পাটাতনে ফুটো ও প্রতিটি জয়েন্টের নট-বল্টুও খোলেগেছে। মরিচিকায় সেতুর পাটাতন গুলো খসে পড়ছে। এমন ঝ্ুঁকিতে ৩০ মিটার দৈর্ঘের এ সেতু দিয়ে ছোট যানবাহন গুলো পার হলেও বন্ধ রয়েছে বড় যান চলাচল। এতে করে রায়পুর ও বটতলী ইউনিয়নের মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই।


জানাযায়, উপজেলার বটতলী ও রায়পুর ইউনিয়নের মধ্যবর্তী স্থানে আন্নার আলী সিকদার হাটে সাপমরা খালের উপর ২০০০ সালে জাপান-বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে এই সেতু নির্মিত হয়। এ সেতু দিয়ে রায়পুর ইউনিয়নের লোকজন বটতলী রুস্তমহাট, উপজেলা সদর ও চট্টগ্রাম শহরে যাথায়াত করে। এ ছাড়া মৎস্য জীবিরা সাগর থেকে মাছ আহরণ করে ট্রাক-পিকাপে এই সেতু ব্যবহার করে বিভিন্ন জেলা- উপজেলায় নিয়ে যায়। কিন্তু ২ বছর ধরে সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ায় এখন ভারী যানবাহন চলছে না। ফলে ভোগান্তি বেড়েছে সাধারণ মানুষসহ ব্যবসায়ীদের।
সরেজমিন সোমবার সেতুটিতে গিয়ে দেখা যায়, সেতুর পাটাতনে অর্ধ-শতাধিক ফুটো, নট-বল্টু গুলোর জয়েন্ট খোলে গেছে, সেতুতে গাড়ি উঠলেই কাঁপতে শুরু করে। এরই মধ্যে ঝুঁকি নিয়েই পার হচ্ছে রিকসা, ভ্যান, সিএনজিসহ ছোট পরিবহন গুলো। তাই অনেক যাত্রী গাড়ী থেকে নেমে হেঁটেই পার হচ্ছে।
স্থানীয় পূর্ব বরৈয়া গ্রামের বাসিন্দা ওবায়দুল হক মানিক জানায়, দীর্ঘ ২ বছর ধরে সেতুটির এ অবস্থা। অনেক দুর্ঘটনাও ঘটেছে। এর পরও কর্তৃপক্ষের টনক নড়ছেনা।


আন্নর আলী সিকদার হাটের অটোরিকশা চালক বদরুজ্জামান জানায়, গাড়ী নিয়ে সেতু পারাপারের সময় ভয়ে-আতঙ্কে থাকতে হয়। যাত্রী নেমে দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে সেতুটি পার হতে হয়। বর্ষাকালে পাটাতন গুলো মারাত্বক পিচ্ছিল হয়ে পড়ে। এই অবস্থায় থাকলে যে কোন সময় প্রাণহানীর ঘটনা ঘটতে পারে।
রায়পুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জানে আলম জানান, সেতুটি দিয়ে প্রতিনিয়ত ব্রিক ফিল্ডের মাটি আনা-নেয়ায় ট্রাক চলাচল ও নির্মানে ২০ বছর পার হলেও মেরামত না করায় সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এতে করে রোগী পরিবহণে ইউনিয়নের মানুষ ভোগান্তিতে পড়ে। বড় যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় মৎস্যজীবিরাও সমস্যার মধ্যে আছে। ঝুঁকি পূর্ণ হওয়ার কারণে কিছুদিন আমি যান চলাচল বন্ধও করে দিয়েছিলম। এখানে একটি স্থায়ী আরসিসি-গার্ডার ব্রীজ করার সুপারিশ করেছি আমি।
এব্যাপারে আনোয়ারা উপজেলা প্রকৌশলী তাসলিমা জাহান জানান,আন্নর আলী সিকদার হাটে সাপমারা খালের উপর নির্মিত বেইলি ব্রীজটি সংস্কারের জন্য গত বছর ঊর্ধŸতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছিল। সেটা অনুমোদন হয়ে আসেনি, এবছর আবারো পাঠানো হবে। তবে নতুন করে একই জাগায় আরসিসি-গার্ডার ব্রীজ করার প্রস্তাবনা সেতু বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly and PDF